Uncategorized

ইসলামের দৃষ্টিতে গরম লোহার হিট থেরাপি

ইসলামের দৃষ্টিতে গরম লোহার হিট থেরাপি
▬▬▬▬◈◍◈▬▬▬▬
শরীরের নানা ব্যথায় গরম সেঁক দেওয়ার রীতি বহুদিনের পুরনো পদ্ধতি। গবেষণা বলছে, দীর্ঘদিনের দিনের ব্যথা, ক্রনিক কোমর ব্যথা, বাতের ব্যথায় গরম সেঁক বা হিট থেরাপি কার্যকর। গরম সেঁক অনেক সময় মাংসপেশির ব্যথা এবং সন্ধির জড়তা দূর করে।
গরম সেঁক কীভাবে কাজ করে?
যখন পেশি বা সন্ধিতে গরম সেঁক দেওয়া হয়, তখন সেখানকার রক্তনালীগুলো প্রসারিত হয়, ফলে রক্ত চলাচল বৃদ্ধি পায়। রক্ত চলাচল বেড়ে যাওয়ার ফলে আক্রান্ত মাংসপেশিতে অক্সিজেন এবং প্রয়োজনীয় পুষ্টির সরবরাহ বেড়ে যায়। সুষ্ঠুভাবে রক্ত চলাচল হয় বলে মাংসপেশিতে আরাম বোধ হয়। (প্রথম আলো)
যাহোক, ইসলামের দৃষ্টিতে গরম লোহার সেঁক বা হিট থেরাপি নাজায়েজ নয় যদি প্রয়োজন হয়। তবে বিকল্প থাকলে অন্য চিকিৎসা করাই উত্তম। কারণ গরম সেঁক দ্বারা অনেক সময় শরীরে কষ্ট অনুভূত হয়। ইবনে আব্বাস রা. থেকে বর্ণিত, রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেন,
‏ الشِّفَاءُ فِي ثَلاَثَةٍ شَرْبَةِ عَسَلٍ، وَشَرْطَةِ مِحْجَمٍ، وَكَيَّةِ نَارٍ، وَأَنْهَى أُمَّتِي عَنِ الْكَىِّ
“তিনটি জিনিসের মধ্যে রোগমুক্তির ব্যবস্থা নিহিত আছে। মধু পান করা ও ব্যবহার করা, শিঙ্গা লাগান এবং উপ্তপ্ত লোহা দ্বারা সেঁক দেয়া। তবে আমি আমার উম্মতকে উপ্তপ্ত লোহা দ্বারা সেঁক দিতে নিষেধ করছি।” [সহিহ বুখারি (ইসলামিক ফাউন্ডেশন) ৬৩/ চিকিৎসা, পরিচ্ছেদ: ২২৭৪. তিনটি জিনিসের মধ্যে রোগের নিরাময় আছে]
অন্য হাদিসে বর্ণিত হয়েছে, জাবির ইবনে আবদুল্রাহ রা. থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, আমি নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কে বলতে শুনেছি:
إِنْ كَانَ فِي شَىْءٍ مِنْ أَدْوِيَتِكُمْ ـ أَوْ يَكُونُ فِي شَىْءٍ مِنْ أَدْوِيَتِكُمْ ـ خَيْرٌ فَفِي شَرْطَةِ مِحْجَمٍ، أَوْ شَرْبَةِ عَسَلٍ، أَوْ لَذْعَةٍ بِنَارٍ تُوَافِقُ الدَّاءَ، وَمَا أُحِبُّ أَنْ أَكْتَوِيَ ‏”
“তোমাদের ঔষধসমূহের কোনটির মধ্যে যদি কল্যাণ বিদ্যমান থেকে থাকে তাহলে তা রয়েছে শিঙ্গা দানের মধ্যে কিংবা মধু পানের মধ্যে কিংবা আগুনের দ্বারা ঝলসিয়ে দেয়ার মধ্যে। তবে তা রোগ অনুযায়ী হতে হবে। আর আমি আগুন দ্বারা সেঁক দেয়াকে পছন্দ করি না।” [সহীহ বুখারি (ইসলামিক ফাউন্ডেশন) ৬৩/ চিকিৎসা, পরিচ্ছেদ: ২২৭৫. মধুর সাহায্যে চিকিৎসা। মহান আল্লাহর বাণী: এর মধ্যে রয়েছে মানুষের জন্য নিরাময়]
তবে হাদিসে এসেছে, রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম গরম আইরনের হিট থেরাপি দ্বারা সা’দ বিন মুয়াজ রা., সা’দ বিন যুরারা রা., প্রমূখ সাহাবিদের চিকিৎসা করেছেন। যেমন:
عَنْ جَابِرِ بْنِ عَبْدِ اللَّهِ، أَنَّ رَسُولَ اللَّهِ ـ صلى الله عليه وسلم ـ كَوَى سَعْدَ بْنَ مُعَاذٍ فِي أَكْحَلِهِ مَرَّتَيْنِ ‏
“জাবির ইবনে আবদুল্লাহ রা. থেকে বর্ণিত। রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম সাদ ইবনে মুআয রা. এর হাতের শিরায় দু বার গরম লোহার সেঁক দিলেন।” [সুনানে ইবনে মাজাহ ২৫/ চিকিৎসা, সহিহ]
তাছাড়া খাব্বাব বিন আরাত রা., আবু তলহা রা. সহ কতিপয় সাহাবি থেকে গরম আইরণের সেঁক দ্বারা চিকিৎসা করার বিষয়টি বিশুদ্ধ সূত্রে সাব্যস্ত হয়েছে। যেমন:
وعن جابر -رضي الله عنه- أن النبي صلى الله عليه وسلم بعث إلى أبي ابن كعب فقطع منه عرقاً ثم كواه، [رواه مسلم]
وعن أنس -رضي الله عنه- أن النبي صلى الله عليه وسلم كوى أسعد بن زرارة من الشوكة [رواه الترمذي، الشوكة حمرة تظهر في الوجه]
وعن أنس -رضي الله عنه- قال: كويت من ذات الجنب ورسول الله صلى الله عليه وسلم حيٌّ، , شهدني وأبو طلحة وأنس بن النضير وزيد بن ثابت وأبو طلحة كواني، [رواه البخاري]
وعن أنس -رضي الله عنه- أن أبا طلحة اكتوى وكوى أناساً من اللقوة [رواه ابن سعد في الطبقات الكبرى بإسناد صحيح]
মোটকথা, আইরণ দ্বারা হিট থেরাপী বা গরম লোহার সেঁকের মাধ্যমে যদি রোগের আরগ্য হয় তাহলে তাতে কোনও সমস্যা নেই। তবে বিকল্প থাকলে না করাই উত্তম। অর্থাৎ তা হবে সর্বশেষ উপায়। কারণ রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এটিকে অপছন্দ করেছেন। শাইখ আব্দুল্লাহ বিন বায. ও অনুরূপ অভিমত ব্যক্ত করেছেন।
আল্লাহু আলাম।
▬▬▬▬◈◍◈▬▬▬▬
লেখক:
আব্দুল্লাহিল হাদী বিন আব্দুল জলীল
দাঈ, জুবাইল দাওয়াহ সেন্টার, সৌদি আরব

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *