Uncategorized

করোনা ভাইরাস থেকে মুক্তির জন্য রসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এর ওসিলা দিয়ে দুআ করার বিধান

প্রশ্ন: সারা বিশ্বব্যাপী করোনা ভাইরাস সংক্রমণের আতঙ্ক চলছে। সুতরাং এই সংকটময় মুহূর্তে রসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এর ওসিলা দিয়ে মহান আল্লাহর দরবারে দুয়া করা যাবে কি?
উত্তর:
সঠিক আকিদা-বিশ্বাস হল, কোন মৃত নবী-রাসূল, অলি-আউলিয়া, পীর-বুজুর্গ বা অন্য কোন মৃত মানুষের ওসিলা ধরা জায়েজ নেই। তবে কোন জীবিত উপস্থিত সৎ লোকের দু‘আর ওসিলা দিয়ে দুয়া করা জায়েজ আছে।
দলিল:
আনাস ইবনে মালিক রা. বলেন:
ﺇِﻥَّ ﻋُﻤَﺮَ ﺑْﻦَ ﺍﻟْﺨَﻄَّﺎﺏِ رضي الله عنه ﻛَﺎﻥَ ﺇِﺫَﺍ ﻗَﺤَﻄُﻮﺍ ﺍﺳْﺘَﺴْﻘَﻰ ﺑِﺎﻟْﻌَﺒَّﺎﺱِ ﺑْﻦِ ﻋَﺒْﺪِ ﺍﻟْﻤُﻄَّﻠِﺐِ ﻓَﻘَﺎﻝَ ﺍﻟﻠَّﻬُﻢَّ ﺇِﻧَّﺎ ﻛُﻨَّﺎ ﻧَﺘَﻮَﺳَّﻞُ ﺇِﻟَﻴْﻚَ ﺑِﻨَﺒِﻴِّﻨﻚ – صلى الله عليه و سلم- ﻓَﺘَﺴْﻘِﻴﻨَﺎ ﻭَﺇِﻧَّﺎ ﻧَﺘَﻮَﺳَّﻞُ ﺇِﻟَﻴْﻚَ ﺑِﻌَﻢِّ ﻧَﺒِﻴِّﻨَﺎ ﻓَﺎﺳْﻘِﻨَﺎ ﻗَﺎﻝَ ﻓَﻴُﺴْﻘَﻮْﻥَ
“মানুষ যখন অনাবৃষ্টিতে আক্রান্ত হতেন তখন উমর রা. আব্বাস ইবনে আব্দুল মুত্তালিবকে রা. দিয়ে বৃষ্টির দু‘আ করাতেন।
তিনি বলতেন: “হে আল্লাহ, আমরা আমাদের নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এর ওসিলায় আপনার নিকট প্রার্থনা করতাম। ফলে আপনি আমাদের বৃষ্টি দান করতেন। এখন আমরা আপনার নিকট প্রার্থনা করছি আমাদের নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এর চাচার ওসিলায়।
অতএব আপনি আমাদেরকে বৃষ্টি দান করুন। আনাস (রা) বলেন, তখন বৃষ্টিপাত হতো।” (বুখারী, আস-সহীহ ১/৩৪২, ৩/১৩৬০)
তখন আব্বাস (রা) নিম্নের বাক্যগুলি বলে দু‘আ করলে আল্লাহ বৃষ্টি দিতেন:
اللهم إنه لم ينزل بلاء إلا بذنب ولم يكشف إلا بتوبة وقد توجه القوم بي إليك لمكانى من نبيك وهذه أيدينا إليك بالذنوب ونواصينا إليك بالتوبة فاسقنا الغيث
“হে আল্লাহ, পাপের কারণ ছাড়া বালা-মুসিবত নাযিল হয় না এবং তওবা ছাড়া তা অপসারিত হয় না। আপনার নবীর সাথে আমার সম্পর্কের কারণে মানুষেরা আমার মাধ্যমে আপনার দিকে মুখ ফিরিয়েছে। এ আমাদের পাপময় হাতগুলি আপনার দিকে প্রসারিত এবং আমাদের ললাটগুলি তওবায় আপনার নিকট সমর্পিত, অতএব আপনি আমাদেরকে বৃষ্টি দান করুন।” [ইবনে হাজার, ফাতহুল বারী, ২/৪৯৭]
শাহ ওয়ালি উল্লাহ মুহাদ্দিস দেহলবী তাঁর ‘আল-বালাগুল মুবীন’ গ্রন্থে উমর রা. এর হাদিসটি উদ্ধৃত করে বলেন:
“এই ঘটনায় প্রতীয়মান হয় যে, মৃত ব্যক্তিকে অ
ওসিলা করা শরিরয়ত বিরোধী। যদি শরিয়ত সিদ্ধ হইত হযরত ওমর (রা) রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামকে ওসিলা করিয়াই দোআ করিতেন। কারণ, মৃত বা জীবিত যে কোন ব্যক্তির চেয়েই রাসূল সাল্লাাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এর ফযিলত সীমাহীন-অনন্ত।
ওমর রা. এই কথা বলেন নি যে, হে আল্লাহ, ইতোপূর্বে তো আমরা তোমার নবীকে ওসিলা করিয়া দুআ করিতাম। কিন্তু এখন তিনি আমাদের মধ্যে বিদ্যমান নাই তাই আমরা তাঁহার রুহু মোবারককে ওসিলা করিয়া তোমার কাছে আর্জি বেশ করিতেছি। তাই কোন মৃত ব্যক্তিকে অসিলা করা মোটেই বৈধ নহে।”
এখান থেকে প্রতীমান হয় যে, কোন মৃত নবী-রাসূল, অলি-আউলিয়া, পীর-বুজুর্গ অন্য কোন মৃত মানুষের ওসিলা ধরা জায়েজ নেই।
উল্লেখ্যে যে, শরিয়ত সম্মত ওসিলা হল তিনটি। যথা:
❖ ১) আল্লাহ নাম ও গুণাবলীর ওসিলায় আল্লাহর নিকট দুয়া করা।
❖ ২) নিজের সৎ কর্মের ওসিলা দিয়ে আল্লাহর কাছে দু‘আ করা।
❖ ৩) কোন জীবিত উপস্থিত সৎ লোকের দু‘আর ওসিলা দিয়ে দুয়া করা।

  • আরও পড়ুন:
    প্রশ্ন: একটি নেক আমলের ওসিলায় কি বিভিন্ন প্রয়োজনে বার বার আল্লাহর কাছে দোয়া করা যাবে? (বৈধ ওসিলা তিনটি)
    https://bit.ly/39BgiaA
    আল্লাহু আলাম।

#coronairus #করোনা_ভাইরাস

উত্তর প্রদানে:
আব্দুল্লাহিল হাদী বিন আব্দুল জলীল
দাঈ, জুবাইল দাওয়াহ সেন্টার, সৌদি আরব

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *