Uncategorized

কুরআনের দিকে পা ছড়িয়ে বসা বা শেয়ার বিধান


▬▬▬◍❂◍▬▬▬
প্রশ্ন: টেবিলের উপর কুরআন মাজীদ রাখা হলে সে দিকে পা দিয়ে ঘুমানো জায়েজ কি?
উত্তর:
কুরআন মহান আল্লাহর বাণী। সুতরাং তার প্রতি সম্মান বজায় রাখা এবং অপমান-অপদস্থের হাত থেকে রক্ষা করা জরুরি। কিন্তু শয়ন কক্ষে খাট থেকে কিছুটা দূরে টেবিলের উপর কুরআন থাকলে সে দিকে পা দিয়ে ঘুমালে কোনও সমস্যা নেই ইনশাআল্লাহ। কারণ কুরআনকে অপমানের উদ্দেশ্যে নয় বরং প্রয়োজনবোধে এমনটি করা হয়।
◍ শাইখ বিন বায রহঃ কে প্রশ্ন করা হয়, মসজিদে মুসল্লিদের সামনের দিকে রেহাল/আলমারিতে কুরআন থাকে। মুসল্লিরা কুরআনের দিকে পা ছড়িয়ে বসে। এতে কোন গুনাহ হবে কি?
তিনি বলেন,
ما يضر، ما يضر، ما هو المقصود الاستهانة، المقصود الاستراحة.
“ক্ষতি নেই, ক্ষতি নেই। কারণ এতে কুরআনকে অপমান করা উদ্দেশ্য নয় বরং উদ্দেশ্যে আরাম করা।”
◍ শাইখ আব্দুর রাহমান নাসের আল বাররাক বলেন,
وأما مد الرجل إلى المصحف فإن كان مرفوعاً في دولاب ونحوه أو بعيداً فلا حرج في ذلك، وإن كان على الأرض قريباً من القدم فلا يجوز؛ لأن ذلك صورة امتهان للمصحف وإن لم يقصد من يمد رجله ذلك، فإن امتهان المصحف لا يقصده مسلم،
“আর কুরআনের দিকে পা ছড়ানোর ব্যাপারে কথা হল, কুরআন যদি আলমারি বা অন্য কিছুর উপরে অথবা দূরে থাকে তাহলে তাতে কোনও অসুবিধা নেই। আর যদি তা মাটিতে পায়ের কাছেই থাকে তাহলে তা জায়েজ নাই। কারণ এটি কুরআনকে অপমান করার একটি রূপ-যদিও সে দিকে পা ছড়ানো দ্বারা এটা তার উদ্দেশ্য না থাকে। কারণ কুরআনকে অপমান করার নিয়ত কোনও মুসলিমেরই থাকে না।” [ar.islamway]
আল্লাহু আলাম।
▬▬▬◍❂◍▬▬▬
উত্তর প্রদানে:
আব্দুল্লাহিল হাদী বিন আব্দুল জলীল
দাঈ, জুবাইল দাওয়াহ সেন্টার, সৌদি আরব

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *