Uncategorized

জায়নামাজে সালাত আদায় এবং সালাত শেষে তা ভাঁজ করে রাখার বিধান

জায়নামাজে সালাত আদায় এবং সালাত শেষে তা ভাঁজ করে রাখার বিধান
▬▬▬▬◐◯◑▬▬▬▬▬
প্রশ্ন: জায়নামাজে সালাত আদায় করা এবং সালাত শেষে তা ভাঁজ করে রাখার হুকুম সম্পর্কে জানতে চাই।
উত্তর:
প্রথমত: আমাদের জানা দরকার যে, ‘বাড়িতে বা বাইরে কোথাও সালাত আদায় করতে হলে অবশ্যই জায়নামাজের উপর তা আদায় করতে হবে’ অথবা
‘মসজিদ ছাড়া সালাতের জন্য জায়নামাজ জরুরি’ শরিয়তে এমন কোনও কথা নেই। বরং যে কোনও পবিত্র স্থানে সালাত আদায় করা জায়েজ। যেমন: হাদিসে এসেছে,
জাবির ইবনে আবদুল্লাহ (রাঃ) থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন,
وَجُعِلَتْ لِيَ الأَرْضُ مَسْجِدًا وَطَهُورًا، وَأَيُّمَا رَجُلٍ مِنْ أُمَّتِي أَدْرَكَتْهُ الصَّلاَةُ فَلْيُصَلِّ
“সমস্ত জমিন আমার জন্য সালাত আদায়ের স্থান ও পবিত্রতা অর্জনের মাধ্যমে করা হয়েছে। সুতরাং আমার উম্মতের যে কারও যেখানেই সালাতের ওয়াক্ত হয় (সেখানেই) যেন সালাত আদায় করে নেয়।” [সহিহ বুখারি (ইসলামিক ফাউন্ডেশন) অধ্যায়: ৮/ সালাত]
সুতরাং মাঠ-ঘাট, পাহাড়-পর্বত, নদী-সাগর তীর, বাগান, পার্ক, কৃষি জমি, জমির আইল, পথের ধারে, বাড়ি/অফিসের ফ্লোর বা মেঝে ইত্যাদি যে কোনও স্থানে সালাত আদায় করা জায়েজ। তবে শর্ত হল, জায়গাটা পবিত্র হতে হবে। অনুরূপভাবে পবিত্র ও পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন বিছানার চাদর, কাপড় বা চাটাই, কার্পেট ইত্যাদির উপরও সালাত আদায় করা যাবে।
আপনি যদি জায়নামাজে সালাত আদায় করেন তাহলে সালাত শেষে ‌তা সুন্দর ভাবে উঠিয়ে রাখবেন। আপনি তা ভাঁজ করে রাখুন, গুটিয়ে রাখুন বা ফোল্ডিং করে হ্যাঙ্গারে বা দেয়ালের সাথে ঝুলিয়ে রাখুন তাতে কোনও পার্থক্য নাই। এখানে মূলত জায়নামাজ কে সংরক্ষণ করাটাই উদ্দেশ্য।‌ কেননা তা মাটিতে উন্মুক্ত পড়ে থাকলে তার উপর দিয়ে ঘরের লোকজন চলাফেরা করে নোংরা করতে পারে, বাচ্চারা পেশাব করে নাপাক করতে পারে। তখন ধৌত করা ছাড়া তাতে সালাত আদায় করা যাবে না। আবার তার
উপর দিয়ে সাপ, বিচ্ছু ইত্যাদি বিষাক্ত পোকামাকড়ও চলাফেরা করতে পারে-যা হবে নামাজি ব্যক্তির জন্য মারাত্মক ক্ষতির কারণ। অনুরূপভাবে ধুলাবালি ও ময়লা-আবর্জনা পড়ে তা নষ্ট হতে পারে। আর নোংরা ও দুর্গন্ধযুক্ত জায়নামাজে সালাত আদায় করা নিঃসন্দেহে কষ্টসাধ্য ও অরুচিকর। এমতাবস্থায় তাতে সালাত আদায় করলে মনে বিরক্তি ভাব সৃষ্টি হবে এবং স্বভাবতই তা হবে সালাতে মনোযোগ বিঘ্নিত হওয়ার কারণ।
➧ উল্লেখ্য যে, অনেকের ধারণা, নামাজ পড়ার পর জায়নামাজ বিছিয়ে রাখতে নেই। নামাজের পর জায়নামাজ বিছিয়ে রাখলে শয়তান এসে তাতে নামাজ পড়ে নেয়। এটি একটি ভুল ধারণা ও কুসংস্কার মাত্র।
অনুরূপভাবে এও বলা হয় যে, জায়নামাজ পাতা থাকলে তাতে শয়তান পেশাব করে দেয়। কিন্তু এটিও সম্পূর্ণ ভ্রান্ত কুসংস্কার। শরিয়তে এমন কোন বক্তব্য নেই।
মোটকথা, জায়নামাজে সালাত আদায় করা আবশ্যক নয় বরং যে কোনও পবিত্র স্থানে বা যে কোন পবিত্র কাপড় বা অন্য কিছু বিছিয়ে তার উপর সালাত আদায় করা যায়। তবে জায়নামাজে সালাত আদায় করলে সালাত শেষে তা যেখানে-সেখানে উন্মুক্ত ভাবে ফেলে না রেখে পরিচ্ছন্নতা ও পবিত্রতার স্বার্থে তা যথাযথভাবে সংরক্ষণ করা উচিত।
▬▬▬▬◐◯◑▬▬▬▬▬
উত্তর প্রদানে:
আব্দুল্লাহিল হাদী বিন আব্দুল জলীল
জুবাইল দাওয়াহ সেন্টার, সৌদি আরব

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *